ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন গ্রেফতার

রংপুরে দায়ের করা মানহানির একটি মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

২২ অক্টোবর, সোমবার রাতে আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসা থেকে বের হওয়ার পর তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহাবুব আলম প্রিয়.কমকে জানান, তাকে (মইনুল হোসেন) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে।

গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টকশো ‘একাত্তরের জার্নাল’-এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন; আপনি বলেছেন, আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন।’

মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই।’

পরে ১৬ অক্টোবর নারী সাংবাদিক ও সম্পাদকরা বিবৃতি দিয়ে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ক্ষমা চাইতে বলেন। তিনি এরপর দুঃখ প্রকাশ করে লিখিত ক্ষমা চাইলেও তাকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান তারা।

২১ অক্টোবর, রবিবার তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন মাসুদা ভাট্টি। এরপর দেশের বিভিন্ন জেলায় একাধিক মামলা দায়ের হয় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে।

মাসুদা ভাট্টি ও জামালপুরের মামলায় মইনুল হোসেন হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন নেন। কুড়িগ্রামে দায়ের করা মামলায় আগাম জামিনের জন্য আবেদন করেন। এর বাইরেও রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি মামলা দায়ের হয়েছে।