৮ হাজার রোহিঙ্গাকে স্বীকার করলো মিয়ানমার

বাংলাদেশ থেকে পাঠানো তালিকার ৮ হাজার রোহিঙ্গাকে ফেরত নেয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার ছাড়পত্র দিয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী।

সোমবার বিকেলে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এসময়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৌদী আরব সফর নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন মন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা মিয়ানমারের কাছে ৮ হাজার রোহিঙ্গার একটি তালিকা দিয়েছিলাম। দেশটির সরকার যাচাই-বাছাই করে তাদের ক্লিয়ার করেছে।’

মাহমুদ আলী বলেন, আমরা বলেছি- রোহিঙ্গাদের নেয়ার পর তাদের থাকার জন্য রাখাইন প্রদেশের গ্রামে ঘর তুলতে হবে। ভারত এ ক্ষেত্রে মিয়ানমারকে সহযোগিতা করছে।

যে ৮ হাজার লোককে মিয়ানমার শনাক্ত করেছে তারা কোন গ্রামের অধিবাসী সেটিও খুঁজে বের করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রথম ব্যাচে ৮ হাজার যাবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার ৮ হাজার জনকে ক্লিয়ার করেছে। এর মধ্যে যদি আরও কিছু হয় তারাও যাবে।’

মিয়ানমারের সঙ্গে চলতি বছরের জানুয়ারিতে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় গত ফেব্রুয়ারিতে প্রত্যাবাসনের জন্য প্রথম তালিকায় ১ হাজার ৬৭৩টি পরিবারের ৮ হাজার ২ জন রোহিঙ্গার নাম পাঠায় বাংলাদেশ।

ওই চুক্তি অনুযায়ী, দুই বছরের মধ্যে ৭ লাখের মতো রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের কথা। কিন্তু সময়মতো প্রত্যাবাসন দূরে থাক মাত্র ৮ হাজারের প্রথম তালিকা যাচাই করতেই অনেক সময় নিলো মিয়ানমার।