রাজধানীতে নামছে ‘ডিজিটাল’ বাস

ভেহিক্যাল ট্রাকিং প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রিত নতুন ধরনের এই বাসের নাম দেয়া হয়েছে ‘ডিজিটাল বাস’।

যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বৃহস্পতিবার বিকালে ফার্মগেইট মোড়ে নতুন এই বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করবেন।

বিআরটিসির চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন আহমেদ বুধবার রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, উত্তরা থেকে মতিঝিল রুটে প্রতিদিন বাসগুলো চলাচল করবে। এসব বাস একইসঙ্গে ভেহিক্যাল ট্রাকিং প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রিত থাকবে।

“ফলে বাসটি কখন কোথায় অবস্থান করছে যাত্রীরা তা ঘরে বসেই জানতে পারবেন।”

প্রথম দফায় ওয়াই-ফাই সুবিধা সম্বলিত ১০টি বাস নামানো হলেও পর্যায়ক্রমে বিআরটিসির আরো বাসে এই প্রযুক্তি বসানো হবে বলে জানান জসিম উদ্দিন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) বিআরসিটিকে প্রযুক্তিগত সহায়তা দিচ্ছে বলেও জানান তিনি।

বিআরটিসির এক কর্মকর্তা জানান, প্রতিটি বাসে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব মোবাইল অপারেটর টেলিটকের চারটি থ্রিজি ওয়াই-ফাই রাউটার থাকবে। একটি বাসে অন্তত ৪০ জন যাত্রী স্মার্ট ডিভাইস দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

এসব বাস ৫৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার গতিতে চললেও যাত্রীদের ইন্টারনেট ব্যবহার করতে কোনো সমস্যা হবে না বলে জানান তিনি।

ওই কর্মকর্তা বলেন, বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় ১০ শতাংশ স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করেন। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই বাসে ওয়াই-ফাই যুক্ত করা হচ্ছে। ধীরে ধীরে বিআরটিসির আরো বাসে এই প্রযুক্তি বসানো হবে।

তথ্য-প্রযুক্তির বিস্তারে সরকারের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির বিষয়টিও প্রাধান্য পেয়েছে বলে জানান তিনি।

বিআরসিটি কর্তৃপক্ষেরও তাদের অফিসে স্থাপিত ড্যাসবোর্ডের মাধ্যমে ডিজিটাল বাসের অবস্থান জানার পাশাপাশি বাসটি সড়কে কতবার যাতায়াত করেছে বা নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাতায়াত করছে কি না তা পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকছে।