ইনস্টাগ্রাম প্রতিষ্ঠাতাদের প্রস্থান, নেপথ্যে জাকারবার্গ?

বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকের সবচেয়ে বেশি আয় এনে দেওয়া প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রাম কীভাবে চলবে তা নিয়ে ফেইসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গ-এর সঙ্গে কেভিন সিসট্রম ও মাইক ক্রিগার-এর বিরোধ ছিল, আর এ কারণেই তারা দুজনে প্রতিষ্ঠান ছেড়ে থাকতে পারেন বলে ভাষ্য বিশ্লেষকদের।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিএফআরএ-এর এক বিশ্লেষক স্কট কেসলার বলেন, “আমাদের ধারণা ওই দুইজন ইনস্টাগ্রামকে তাদের মূল প্রতিষ্ঠান যেভাবে চায় তার চেয়ে আরও স্বাধীনভাবে চালাতে চেয়েছিলেন।”

“আমরা মনে করি এই চলে যাওয়া ফেইসবুকের জন্য উল্লেখযোগ্য নেতিবাচক দিক।”

রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ঘটনার পর মঙ্গলবার ইনস্টাগ্রামের মালিক প্রতিষ্ঠান ফেইসবুকের শেয়ারমূল্য ২.৪ শতাংশ পড়ে গেলে প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য কমে যায় ১১০০ কোটি ডলারেরও বেশি।

এর আগে চলতি বছরেই ফেইসবুক ছাড়েন এর অধীনস্থ সংকেতায়িত মেসেজিং সেবাদাতা অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা জান কুউম ও ব্রায়ান অ্যাকটন। এছাড়াও ফেইসবুকের শীর্ষ পদ্গুলোতে আসে একাধিক রদবদল।

ব্লুমবার্গ-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইনস্টাগ্রামে জাকারবার্গের সম্পৃক্ততা দিন দিন বাড়তে থাকায় তা নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েন সিসট্রম ও ক্রিগার। ফেইসবুকের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় ইনস্টাগ্রামের উপর নির্ভরতা আরও বাড়িয়ে দিচ্ছিলেন জাকারবার্গ।

এদিকে ইনস্টাগ্রাম সহ-প্রতিষ্ঠাতাদের চলে যাওয়ার খবর আসার পরই বিবৃতি দেন। ওই দুইজনকে “সমন্বিত সৃজনশীল মেধাবী” হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন তিনি। জাকারবার্গ বলেন, “আমি শেষ ছয় বছর ধরে অনেক কাজ শিখেছি আর সত্যিই তা উপভোগ করেছি।”

“তারা পরবর্তীতে কী বানাবে তা দেখার জন্য সামনে তাকিয়ে আছি।”