৬৩ ওমরাহ এজেন্সিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি উপেক্ষা করে পাঁচশোর বেশি ওমরাহ হজ যাত্রী পাঠানো ও তাদের কেউ কেউ দেশে ফিরে না আসার অভিযোগে ৬৩টি এজেন্সিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে আগামী সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।
নোটিশ প্রসঙ্গে হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন বলেন, ওমরাহের ৫শ যাত্রী পাঠানোর একটি বিধান ছিল। এর অতিরিক্ত পাঠালে সরকারের অনুমতি নিতে হয়। এক্ষেত্রে যদি কেউ অনুমতি না নিয়ে ওমরাহে পাঠায় আর যদি যাত্রীরা ফিরে না আসে এর দায় এজেন্সির। দায়ী এজেন্সির বিরুদ্ধে হাবের পক্ষ থেকেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, সৌদি সরকারের একটি নিয়ম আছে। সেখানে বলা হয়েছে, মোট যাত্রীর এক ভাগ যুক্তিসংগত কারণে সৌদিতে অবস্থান করতে পারবে। কিন্তু যদি এর বেশি থাকে তাহলে এজেন্সির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা দেওয়া যেতে পারে। এরই ধারাবাহীকতায় ৬৩ এজেন্সিকে নোটিশ করেছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বলা হয়, জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-১৪৩৯ হিজরী/২০১৮ খ্রি. এর অনুচ্ছেদ নং- ২১.২.৩ ও ২১.২.৪ এর নির্দেশনা উপেক্ষা করে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান ওমরাহর ভিসার নির্ধারিত কোটা ৫০০ এর অধিক যাত্রী পাঠানো এবং কোনো কোনো প্রতিষ্ঠানের ১ থেকে ৪৮ জন পর্যন্ত ওমরাহ যাত্রী বাংলাদেশে ফেরত না আসার অভিযোগ রয়েছে।